শিরোনাম
জরুরি পণ্য পরিবহন ছাড়া ভারতের সঙ্গে সব যোগাযোগ বন্ধের প্রস্তাব করোনায় বেসামাল ভারত লাশের স্তুপ ফুরাচ্ছে না শ্মশানে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মিতে করোনায় মৃত্যুর হার কম: গবেষণায় দাবি বিদেশি গণমাধ্যম ঠেকাতে নজরদারি ব্যবস্থা ব্যবহার করেছে চীন : রিপোর্ট বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ১৪ কোটি পাঁচ লাখ বাংলাদেশিদের জন্য দক্ষিণ কোরিয়ায় আবারও ভিসা নিষেধাজ্ঞা মুভমেন্ট পাসের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৩ লাখ ১০ হাজার জন স্বাগত পবিত্র রমজান,আত্মশুদ্ধির সর্বোত্তম উপায় চাঁদপুর স্থাপন হচ্ছে তিন শয্যাবিশিষ্ট আইসিইউ শরীরের ছাঁকনি ‘কিডনি’ পরিষ্কার ও সুস্থ রাখবেন যেভাবে
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০১:৪৪ অপরাহ্ন
নুটিশ :
Wellcome to our website...

ধামইরহাটে গমের বাম্পার ফলন দাম পেয়ে খুশি কৃষক

রিপোটারের নাম / ৯৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১

সাউথবিডিনিউজ ডেস্ক:

নওগাঁর ধামইরহাটে এবার গমের ফলন ও দাম বেশি পেয়ে কৃষকের মুখে হাসি ফুটে ওঠেছে। অন্যান্য বারের তুলনায় এবার উচ্চ ফলনশীল গম বীজ বপন করায় ফলন অনেক বেশি হয়েছে। বাজারে বর্তমানে প্রতি মণ এক হাজার দুইশত টাকা দরে কেনাবেচা চলছে। গমের ফলন ও দাম বেশি হওয়ায় আগামীতে গম চাষ বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি রবি মওসুমে ধামইরহাট উপজেলায় প্রায় এক হাজার ৫শত ৪৫ হেক্টর জমিতে কৃষক গম চাষ করেন। অধিকাংশ জমিতে কৃষক উচ্চ ফলনশীল জাত হিসেবে পরিচিত বারি-৩০ ও ৩৩ রোপন করেছে।

এছাড়া বারি-২৫,২৬,২৮,২৯,৩১,৩২ জাতের গম চাষ করা হয়। এবার আবহাওয়া গম চাষের অনুকূলে এবং কৃষি বিভাগের সঠিক তদারকি ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করায় গম গাছের কোন রোগ বালাই ছিল না। বর্তমানে পুরোদমে গম মাড়াই কাজ চলছে। প্রতি একরে উচ্চ ফলনশীল রাবি-৩০ ও ৩৩ জাতের গম প্রায় ৪০ মণ হারে ফলন হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাতির পিতার ম্যুরালে হামলাকারী গ্রেপ্তার, পিস্তল-গুলি ও শাবল উদ্ধার সাঁথিয়ায় হিন্দু পরিবারের জমি অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা ≣ বাইডেনের জলবায়ু সম্মেলনে পাকিস্তান কেনো নেই?
উপজেলার উমার ইউনিয়নের অন্তর্গত অমরপুর গ্রামের গম চাষী মো.আব্দুল গোফ্ফার বলেন,উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে তিনি এবার বারি-৩৩ জাতের গমের বীজ ও সার সহায়তা পেয়েছেন। গম বীজ সংরক্ষণের জন্য কৃষি বিভাগ থেকে তাকে বস্তা, বস্তা সেলাই মেশিন, আর্দ্রতা মাপার যন্ত্র দেয়া হয়েছে। গত বছরও তিনি গম উৎপাদন করে বীজ সংরক্ষণ করে প্রতি মণ দুই হাজার টাকা দরে স্থানীয় কৃষকদের কাছে বীজ বিক্রি করেন।

তার গ্রুপে ১৫ জন কৃষক মিলে চার একর জমিতে গম চাষ করেছেন। এ জাতের গমের শীষ অনেক লম্বা এবং দানা মোটা। এছাড়া এ জাতের গম গাছে ব্লাস্ট রোগ হয়না এবং প্রচন্ড তাপ সহনীয় হওয়ায় অনেক সহজে চাষাবাদ করা যায়। একর প্রতি তার ফলন হয়েছে প্রায় ৪০ মণ।

বাজারে বর্তমানে প্রতিমণ গম এক হাজার ২শত টাকা দরে কেনাবেচা চলছে। তবে তারা গম সংরক্ষণ করে আগামীগে বীজ হিসেবে বিক্রি করবেন। এতে স্থানীয়ভাবে কৃষকদের মাঝে উন্নতমানের গম বীজ প্রদান করা হবে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

মাসিক তথ্য

ব্রেকিং নিউজ
Bengali BN English EN
ব্রেকিং নিউজ
Bengali BN English EN